Phitha-Utshob-blog-post

বিসিআই ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট পিঠা উৎসব-২০১৯

শীত আসে। সেই সঙ্গে হাজির হয় পিঠা উৎসব। এ সময় টাটকা চালে তৈরি করা হয় বাহারি পিঠা পুলি। পিঠার সেই মৌ মৌ গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে মূলত ঋতুর প্রথম ভাগ থেকে। এ গেল দেশ–প্রাণের কথা। শহরে কিংবা প্রবাসেও নরনারীরাও এই আয়োজন থেকে বিচ্ছিন্ন থাকতে চান না। তারা ছেলেমেয়ে বা প্রিয়জনদের সামনে আনেন মুখরোচক সব পিঠা।

গোলায় ধান তোলার পর গ্রাম ভাসে আনন্দের বন্যায়। ধান কাটা ও গোলায় ভরার এ উৎসব নতুন এক খবর দেয় জনপদে। সে বার্তায় থাকে পিঠার আমন্ত্রণ। শীতের সকালে খেজুর রসের স্বাদই আলাদা। সে রসে ভেজানো চিতই পিঠার ঘ্রাণ টানে পাড়ার মানুষকে। এখানে রস নেই তবে দেশ থেকে আসা পাটালি গলিয়ে আসল স্বাদ পাওয়ার বিকল্প ব্যবস্থাও কারও আয়ত্তের বাইরে নয়।

এ সময়ে প্রকৃতির আরেক দান খেজুরের রস। স্কুল ছুটি হয়ে যায়। মামা বাড়ি বেড়ায় ছোটরা। পিঠার ধুম পড়ে যায়। এটা শাশ্বত বাংলার ছবি। শহরে এই আনন্দ পাওয়া দুষ্কর। সেই নদী, সেই প্রকৃতি, কোথায় মিলবে! তারপরও এর প্রভাব থেকে মুক্ত থাকা যায় না। এটা রক্ত মাংসে জড়ানো যে!

আর বাঙালিরা চিরকালই অতিথি পরায়ণ। সামাজিক বন্ধনটিও শক্ত তাদের। কাউকে না বলে তারা খায় না। সবাই মিলে এক জায়গায় হবে। খাবে, আনন্দ করবে-সে আনন্দের ভাগ সবাই পাবে। এ জন্যই শীতে তাদের আয়োজন।

এরই ধারাবাহিকতায়, বিসিআই ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট নতুন ক্যাম্পাসে খুব শিঘ্রই একটি শীতকালীন পিঠা উৎসবের আয়োজন করতে যাচ্ছে। উক্ত উৎসবে বিসিআই পরিবারের সকল সদস্যকে (শিক্ষক, কর্মচারী, শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবক) অগ্রিম আমন্ত্রন জানানো যাচ্ছে। পিঠা উৎসবের দিন এবং তারিখ খুব শিঘ্রই আপনাদের জানিয়ে দেওয়া হবে।

বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন বিসিআই ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউটের Vice Principal-কাজল কুমার স্যার এর সাথে।

  • Share This: